• নরসিংদী
  • বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৭ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

নরসিংদী  বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ;   ০৭ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
website logo

নরসিংদীতে সেপটি ট্যাংক থেকে ৩ বছরের শিশুর লাশ উদ্ধার 


জাগো নরসিংদী 24 ; প্রকাশিত: শনিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:৪৩ পিএম
নরসিংদীতে সেপটি ট্যাংক থেকে ৩ বছরের শিশুর লাশ উদ্ধার 
উদ্ধার অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার: নরসিংদীতে সেপটিক ট্যাংক থেকে আশরাফুল ইসলাম নামে  তিন বছরের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সদস‍্যরা। শনিবার (১৯ নভেম্বর)  দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নরসিংদী শহরতলীর ঘোড়াদিয়া সোনাতলা এলাকার নির্মাণাধীন একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শিশু আশরাফুল একই এলাকার আলফাজ মিয়া ও আম্বিয়া বেগম দম্পতির ছেলে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সকালের নাস্তা খেয়ে বাড়ির উঠানে খেলছিল শিশু আশরাফুল। সকাল সাড়ে ১০টার পর তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন তার মা। এক পর্যায়ে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারেন বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরের নির্মাণাধীন একটি একতলা বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে এক শিশুর লাশ পড়ে আছে।

এসময় স্থানীয়রা ত্রিপল নাইনে ফোন করেন। এতে খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) একেএম শহিদুল ইসলাম সোহাগসহ সদর থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সেপটিক ট্যাংকের ভিতর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করেন। পরে শিশুটির মা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশ শনাক্ত করেন।

নির্মাণাধীন বাড়িটির প্রতিবেশি জরিনা বেগম জানান, ৮-১০ বছরের এক মেয়ে শিশুকে অপর এক ছোট শিশু নিয়ে নির্মাণাধীন বাড়িটির পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন। পরে তিনি গোসল শেষে বের হয়ে তার বাড়ির পাশ দিয়ে মেয়ে শিশুটিকে একা দৌড়ে যেতে দেখেন।  

শিশুটির মা আম্বিয়া বেগম বলেন, কয়েকদিন আগে পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া ৮-১০ বছরের এক মেয়ের সাথে তার বড় ছেলের কথা কাটাকাটি হয়। এসময় মেয়েটি তার ছেলেকে থাপ্পড় দেয়। শনিবার সকালে ওই মেয়েকে তার বাড়ির পাশে ঘুরতে দেখা গিয়েছিল। বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরের নির্মাণাধীন বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে কীভাবে তার ছোট ছেলে গেল তা বুঝতে পারছেন না তিনি।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) একেএম শহিদুল ইসলাম সোহাগ এই তথ্য নিশ্চিত  করে বলেন, '৯৯৯ এর মাধ্যমে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তের পর বলা যাবে শিশুটি কীভাবে মারা গেল।'

নারী ও শিশু বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ