• নরসিংদী
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

নরসিংদী  বৃহস্পতিবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ;   ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
website logo

রায়পুরায় একটি বিদ্যানিকেতন সরকারিকরণের দাবিতে মানববন্ধন


জাগো নরসিংদী 24 ; প্রকাশিত: শনিবার, ০২ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৯:১৭ পিএম
রায়পুরায় একটি বিদ্যানিকেতন সরকারিকরণের দাবিতে মানববন্ধন
মানববন্ধন

বশির আহম্মেদ মোল্লা: নরসিংদীর রায়পুরায় মরহুম ইউনুছ আলী বিদ্যানিকেতনটি  সরকারিকরণের দাবিতে আলোচনা সভা ও মানববন্ধন করা হয়েছে। মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন শিক্ষক শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (২ জুলাই) সকালে নরসিংদী জেলার রায়পুরা পৌরসভার পশ্চিমপাড়া এলাকায় মরহুম ইউনুছ আলী বিদ্যানিকেতন মাঠ প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন ও আলোচনা সভা হয়েছে।

মানববন্ধন শেষে আলোচনা সভায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল বাছেদের পরিচালনায় সভাপতি হাজী গিয়াস উদ্দিন এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মরহুম ইউনূস আলী বিদ্যানীকেতনের প্রতিষ্ঠাতা, ব্রাজিল আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি প্রবাসী হাজী ইকবাল হোসেন।

এ সময় আরোও বক্তব্য রাখেন,পৌর মেয়র মো জামাল মোল্লা,উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এ্যাড.ইউনূস আলী ভুইয়া,ভৈরব যুবলীগের সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক, ভৈরব চেম্বার অভ কমার্স সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন।

উপস্থিত ছিলেন ভৈরব থানা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক টিটু,ভৈরব যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো: দীন ইসলাম,ভৈরব থানা ছাত্রলীগ নেতা আবুল বাশার, রায়পুরা বাজার কমিটির সভাপতি ফারুক মিয়া,পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহেদ আলী ভুট্টু, বাতুর রহমান জামে মসজিদ সভাপতি সাংবাদিক বশির আহম্মেদ মোল্লা, রায়পুরা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড আ.লীগ সভাপতি ধনু মিয়া প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, মরহুম ইউনুছ আলী বিদ্যানিকেতনটি ২০০৬ সালে পৌরসভা ১নং ওয়ার্ড রায়পুরা পশ্চিমপাড়া বিদ্যালয়টি অবস্থিত। এলাকায় ৩হাজারও অধিক লোকের বসবাস। ওই ওর্য়াডে কোন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই। বর্তমানে এখানে ৬জন শিক্ষক শিশু শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ৪শত শিক্ষার্থী রয়েছে। শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে শিক্ষাদান ও তাদের বই খাতা,স্কুল ড্রেস বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতার মাধ্যমে হাজী ইকবাল হোসেন এর ব্যক্তিগত অথ্যায়নে বিদ্যালটি পরিচালিত হয়ে আসছে।

উক্ত বিদ্যালয়টি সরকারী করনের জন্য সরকারী চাহিদা মোতাবেক পরিচালিত হচ্ছে। হাজী ইকবাল হোসেন এর ব্যাক্তিগত সাহায্য সহযোগিতা না পেলে বিদ্যালয়টি যে কোন সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে,দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া থেকে ঝড়ে যেতে পারে।তাই শিক্ষক,শিক্ষার্থী,অভিভাবকসহ এলাকাবাসী উক্ত বিদ্যালয়টি দ্রুত সরকারিকরণের জোর দাবি জানান বক্তারা।

ইকবাল হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন যাবত বিদ্যালয়টি পরিচালনা করে আসছি। বিদ্যালয় পরিচালনায় বিভিন্ন ব্যায় শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন আমি নিজেই দিয়ে যাচ্ছি। সরকারি কারণ করা হলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে।
রায়পুরা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এ্যাড ইউনুস আলী ভূইয়া বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। সরকার বাহাদুর শিক্ষাখাতকে এগিয়ে নিতে নানাবিধ পরিকল্পনা করছে। পশ্চিম পাড়া এলাকাটি পৌর এলাকায় হলেও এটি একটি প্রত্যন্ত অঞ্চলে হওয়ায় শিক্ষার ক্ষেত্রে এখনো পিছিয়ে। ব্যাক্তি উদ্যোগে দীর্ঘদিন যাবৎ পরিচালিত হচ্ছে। এই বিদ্যালয়টি বন্ধ হলে শিক্ষার্থী জরে পরবে শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হবে। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বিদ্যালয়টি দ্রুত সরকারি করনে কর্তৃপক্ষের সু দৃষ্টি কামনা করছি।

পৌর মেয়র মো জামাল মোল্লা জানান, মরহুম ইউনুছ আলী বিদ্যানিকেতনটি রায়পুরা পশ্চিমপাড়া খুবই অবহেলিত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে বিদ্যালয়টি পরিচালিত হচ্ছে। দীর্ঘ সাত বছর যাবত স্থানীয় ইকবাল হোসেন এর বক্তিগত অথ্যায়নসহ স্থানীয়দের সহায়তায় পরিচালিত হয়ে আসছে। দ্রুত এই প্রতিষ্ঠানটিকে সরকারিকরণের জন্য জোর দাবি জানাই।'

শিক্ষা বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ